আজ শুক্রবার, ১৪ Jun ২০২৪, ০৬:২০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
«» নতুন প্রার্থী হিসেবে চমক দেখাতে চান মুসলিমা খাতুন নীতি «» প্রজাপতি প্রতীক পেয়েই ভোটের মাঠে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী শিউলী বেগম «» শিবগঞ্জে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন নুরজাহান বেগম «» ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম রাব্বানী «» শিবগঞ্জে মনোনয়ন জমা শেষ, চেয়ারম্যান ৬, ভাইস-চেয়ারম্যান ৭, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান ৩ «» ভোটারদের উৎসাহেই নির্বাচনে এসেছি -ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী উজ্জ্বল «» ভোটারদের উৎসাহেই নির্বাচনে এসেছি -ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী উজ্জ্বল «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশনের উদ্যোগে ঈদ পূর্ণমিলনী «» শিবগঞ্জে শেখ হাসিনার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ফুটবল টুর্নামেন্ট ও পুরস্কার বিতরণ «» শিবগঞ্জে সাহাপাড়া আলহেরা আল জামিয়াতুল ইসলামীয়ার আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী

শিবগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারামারি, থানায় এজাহার

নিউজ ডেস্ক : চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মারামারির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার ১২ ই অক্টোবর ২০২০ বিকেলে শিবগঞ্জ পৌর এলাকার দৌলতপুর কদমতোলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মারামারির ঘটনায় এক পক্ষ বাদী হয়ে শিবগঞ্জ থানায় এজাহার দায়ের করেছে । এজাহার সূত্রে মো: আনারুল ইসলাম জাহু বলেন, পূর্ব শত্রুতার বশবর্তী হয়ে আমার বাড়ির পাশের জান মোহাম্মদ জেন্টু রাজাকার, তার ছেলে মিলন আলী ও তার স্ত্রী নিরো বেগম সহ আরো অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জন লোক আমার বাড়িতে অনধিকার প্রবেশ করে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গারিগালাজ করতে থাকে। আমি ইহার কারন জানতে চাইলে তারা লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের উপর চড়াও হয় এবং এলোপাতাড়ি আমােেক মারতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা আমার মাথায় লোহার রড দ্বারা আঘাত করলে আমার মাথা ফেটে রক্ত বের হওয়া দেখে পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা আমাকে বাঁচাতে আসলে তাদের উপরও আক্রমন করে আমার স্ত্রী সহ ৪ জনকে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায় তারা। আমরা এ বিষয়ে শিবগঞ্জ থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছি যাতে আমরা এর সুষ্ঠু বিচার পাই। এ বিষয়ে জান মোহাম্মদ জেন্টুর ছেলে মিলন আলী বলেন, আমার বাড়ির সামনে মোটরসাইকেল ধোয়া পানি গড়িয়ে পড়া নিয়ে তাদের সাথে সামান্য কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে। এতে আমাদের ৪ জন আহত হয়েছে। স্থানীয়দের মধ্যে আশরাফুল ইসলাম জানান, আমি ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলাম না, তবে পরে বাড়িতে এসে গন্ডগোলের বিষয়ে শুনেছি । প্রত্যক্ষদর্শী আজিজুর রহমান বলেন, আমি রাস্তা দিয়ে বাজারে যাওয়ার পথে উভয় পক্ষের সংঘর্ষ দেখে দাঁড়িয়ে যাই, এসময় আনারুল ইসলাম জাহু সহ কয়েকজনকে আহত অবস্থায় দেখেছি ।

আপনার মতামত দিন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :