আজ শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
«» শিবগঞ্জের অসহায় নাজরিনের পাশে সমাজসেবা কর্মকর্তা কাঞ্চন কুমার দাস «» শিবগঞ্জে পুলিশের ওপেন হাউস-ডে পালিত «» শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদে ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়বেন নাজমুল আলম উজ্জ্বল «» এতিম শিশুদের সাথে নিয়ে গৌড় শিবগঞ্জ ম্যাংগো সিটির ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত «» সংরক্ষিত মহিলা সদস্য হিসেবে সুরাইয়া সুলতানা শর্মীকেই দেখতে চায় চাঁপাইবাসী «» শিবগঞ্জে পাঁকা চরাঞ্চলের শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ «» চাঁপাইনবাবগঞ্জে মিথ্যা তথ্য প্রকাশের প্রতিবাদ ও শাস্তির  দাবীতে সংবাদ সম্মেলন «» শিবগঞ্জে আনক কামিল মাদরাসায় পিঠা উৎসব «» শিবগঞ্জে আলহেরা ইয়াতিমখানার উদ্যোগে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত «» শিবগঞ্জে এমপি শিমুল এর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির পাল্টা সংবাদ সম্মেলন

ভোট নেই তাই কেউ চোখ তুলেও তাকায়না -অভুক্ত লাল ভানু

হাবিবুল বারি হাবিব : “আমার ভোট নাই তাই কেউ চোখ তুলেও তাকায়না, এখন আর কেউ ভিক্ষাও দেয়না” কথা গুলো বলছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ মোবারকপুর জোহরপুর গ্রামের আবু তালেবের বাড়ির পেছনে আম বাগানের এক কোণে গোলাকৃতির পলিথিনের এক কুঁড়েতে বসবাসকারী লাল ভানু । স্বামী পরিত্যক্তা লালভানু ত্রিশ বছর যাবৎ এই গোলাকৃতির কুঁড়েতেই বসবাস করে আসছেন । ত্রিশ বছর আগে গাইবান্ধার সাঘাটা কালুরপাড়া থেকে তাঁর নেশাগ্রস্থ স্বামী তাঁকে তাড়িয়ে দেয় । এরপর দিশেহারা লালভানু ভিক্ষাবৃত্তির এক পর্যায়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ মোবারকপুরে এসে অপরিচিত এক লোকের বাড়ির পেছনে ঠাঁই পান । পলিথিন দিয়ে নিজেই তৈরি করেন মাথা গোঁজার ঠাঁই । এলাকায় ভিক্ষা করেই জীবন যাপন তাঁর । বিভিন্ন সময়ে স্থানীয় ওয়ার্ড সদস্য ও চেয়ারম্যানদের দারস্থ হলেও এলাকায় ভোট নেই শুনেই কেউ সহযোগীতা করেনা বলে জানায় লাল ভানু । কিন্তু সম্প্রতি করোনা ভাইরাসে সচেতনতার জন্য সারাদেশ স্তব্ধ হয়ে থাকায় খেটে খাওয়া অসহায় ও দুস্থদের মাঝে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন ত্রাণ বিতরণ হলেও কোথাও কিছু পাননি তিনি । অশ্রুসিক্ত চোখে পৃথিবী সংবাদকে এ কথাগুলো জানান সর্বহারা বয়স্ক লাল ভানু । এতদিন যাবৎ এখানে বসবাসের পরও ভোটার হতে না পারার কারন জানতে চাইলে লাল ভানু বলেন, আমি কয়েকজনকে ভোট লিখার জন্য বললে সবাই বলেছে আপনি যেহেতু বাইরের মানুষ তাই ওখানেই ভোট লিখান, এ ব্যাপারে স্থানীয়রা জানান, মহিলাটি দীর্ঘদিন যাবৎ এখানেই বসবাস করছেন, খুব কষ্ট করেই ভিক্ষা করেই জীবন চালাতে হয় তাকে । স্থানীয় ওয়ার্ড সদস্য (মোবারকপুর-৬) গোলাম মোস্তফা পৃথিবী সংবাদকে বলেন, আমি উনার বিষয়ে জানি, উনি ভিক্ষা করেই চলেন, কিছু অনুদান পেলে স্থানীয় দরিদ্র ভোটারদেরই দিতে পারিনা, তবে চেষ্টা করবো আর আপনারাও পারলে একটু দেখেন উনার প্রতি ।

আপনার মতামত দিন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :