আজ শনিবার, ১৩ Jul ২০২৪, ১১:৩৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
«» আন্তর্জাতিক মাদকমুক্ত সম্মাননা পেলেন শিবগঞ্জের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আরিফ উদ্দিন «» নতুন প্রার্থী হিসেবে চমক দেখাতে চান মুসলিমা খাতুন নীতি «» প্রজাপতি প্রতীক পেয়েই ভোটের মাঠে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী শিউলী বেগম «» শিবগঞ্জে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন নুরজাহান বেগম «» ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম রাব্বানী «» শিবগঞ্জে মনোনয়ন জমা শেষ, চেয়ারম্যান ৬, ভাইস-চেয়ারম্যান ৭, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান ৩ «» ভোটারদের উৎসাহেই নির্বাচনে এসেছি -ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী উজ্জ্বল «» ভোটারদের উৎসাহেই নির্বাচনে এসেছি -ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী উজ্জ্বল «» চাঁপাইনবাবগঞ্জ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশনের উদ্যোগে ঈদ পূর্ণমিলনী «» শিবগঞ্জে শেখ হাসিনার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ফুটবল টুর্নামেন্ট ও পুরস্কার বিতরণ

যাত্রীর সাথে বাকবিতন্ডা, হামলায় গুরুতর আহত ট্রেন পরিচালক

কপোত নবী, নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে একজন যাত্রীর সাথে টিকিট কাটা, ভাড়া ও ট্রেন ছাড়ার সময় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জগামী সাটল ট্রেনের সহকারী ড্রাইভার রফিকুল ইসলামের সাথে।

এই ঘটনার সূত্র ধরেই চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে এসে ট্রেন থামার পর সোমবার সকাল ৮টা ৩০ মিনিটের দিকে ৫-৬ যুবক আতর্কিত হামলা চালায় ট্রেন পরিচালক পার্থ প্রতিম মজুমদারের উপর। গুরুতর আহত অবস্থায় রেলওয়ে স্টেশনের অন্যান্য স্টাফরা তাকে উদ্ধার করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। এ ঘটনায় রাজশাহী জিআরপি থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার মো. মনিরুল ইসলাম।

তিনি জানান, রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা সাটল ট্রেনের যাত্রীর সাথে টিকিট কাটা, ভাড়া ও বিলম্বে ট্রেন ছাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় এক যাত্রীর সাথে। সহকারী ড্রাইভার রফিকুল ইসলাম ওই যাত্রীকে অনেকভাবে বোঝানোর চেষ্টা করে, ট্রেন ছাড়ার দায়িত্ব আমাদের হাতে নেয়।

এটি নিয়ন্ত্রণ করে রেলওয়ের কন্ট্রোল বিভাগ এবং তাদের নির্দেশনা ছাড়া ট্রেন যাতায়াত করতে পারে না। কিন্তু সেই যাত্রী সেইসব কথা না বুঝেই ৫-৬ জনকে নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেন থামা মাত্রই মারধর শুরু করে। ট্রেন পরিচালক পার্থ প্রতিমের কাছে থাকা অর্থ ও মোবাইল নিয়ে পালিয়ে যায় তারা।

ঘটনার সময় ১নং প্লাটফরমে মেইল ট্রেন দাড়িয়ে থাকায় ও সাটল ট্রেনটি এসে ২নং প্লাটফরমে থামার ফলে নিরাপত্তাকর্মীদের চোখ এড়িয়ে যায়। ২০-২৫ বছর বয়সী সেসব যুবকরা মারধরের সাথে সাথেই মোটরসাইকেলে পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সদর থানা পুলিশ, জিআরপি পুলিশসহ রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে বলে জানান স্টেশন ম্যানেজার মনিরুল ইসলাম।

আপনার মতামত দিন :
সংবাদটি শেয়ার করুন :